স্মার্টফোনে ঘাঁটি গেড়ে বসেছে হ্যাকার? এই সহজ উপায়ে এখনই তাড়ান…

স্মার্টফোনে ঘাঁটি গেড়ে বসেছে হ্যাকার? এই সহজ উপায়ে এখনই তাড়ান

 

প্রযুক্তি আমাদের জীবন অনেক সহজ করে দিয়েছে। পাশাপাশিই আবার প্রযুক্তি ব্যবহারের কিছু সমস্যাও রয়েছে। আজকাল ল্যাপটপ ও স্মার্টফোন হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেয় হ্যাকাররা। আর একবার ফোন হ্যাক হয়ে গেলে, হ্যাকারের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া অসম্ভব এক কাজ। স্মার্টফোনের মাধ্যমে সারাদিন ব্যাঙ্কিং, চ্যাটিং, ছবি ও ভিডিয়ো শেয়ারিং-সহ বিভিন্ন কাজ করে থাকি আমরা। এই সব তথ্য হ্যাকারের হাত পৌঁছলে পরিণতি ভয়ঙ্কর হতে পারে। তবে, আপনি চাইলে স্মার্টফোন থেকে হ্যাকারকে তাড়াতেও পারেন। কী ভাবে করবেন এই অসাধ্যসাধন? জেনে নিন।

স্মার্টফোন হ্যাক হলে বুঝবেন কী ভাবে?

***স্মার্টফোনে ঘাঁটি গেড়ে বসেছে হ্যাকার? এই সহজ উপায়ে এখনই তাড়ান**

প্রথমেই স্মার্টফোন হ্যাক হয়েছে কি না, তা বোঝা দরকার। এইসব লক্ষণগুলি দেখা গেলে বুঝবেন আপনার স্মার্টফোন হ্যাক হয়েছে:-

স্মার্টফোনে অজানা কল অথবা মেসেজ দেখতে পেলে বুঝবেন আপনার ফোন হ্যাক হয়েছে।
* হ্যাকাররা অনেক সময় আপনার নম্বর ব্যবহার করে মেসেজ পাঠিয়ে অথবা কল করে হ্যাকিংয়ের জাল বিস্তার করে।
স্মার্টফোনে নতুন রেকর্ড দেখতে পেলে সন্দেহের কারণ রয়েছে।
* আজকাল হ্যাকাররা স্মার্টফোনে প্রবেশ করে প্রথমেই রেকর্ড পরিবর্তন করার চেষ্টা করেন।
হঠাৎ করে ফোন স্লো হয়ে গেলে অথবা ফোন অতিরিক্ত গরম হলেও ফোন হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
এছাড়াও ফোনে চার্জ দ্রুত শেষ হতে শুরু করলেও বুঝতে হবে, আপনার ফোন হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

আপনার ফোন থেকে হ্যাকারকে তাড়াবেন কী ভাবে?

আপনর ফোন হ্যাক হয়েছে, তা নিশ্চিত হলে ফোন থেকে হ্যাকারকে তাড়ানোর কাজ যত দ্রুত সম্ভব শুরু করতে হবে। তার জন্য নীচের উপায়গুলি দেখে নিন।

প্রথমেই নিজের ফোনে থাকা যে কোনও অজানা অ্যাপ আনইনস্টল করুন।
* নিয়মিত যে সব অ্যাপ ব্যবহার করেন না, সেই সব অ্যাপ ফোন থেকে ডিলিট করে দিন।
সব অ্যাপের পার্মিশনগুলি দেখে নিন। কোনও অ্যাপকে অপ্রয়োজনীয় পার্মিশন দেওয়া থাকলে, সেই পার্মিশনও বন্ধ করুন।
* সম্প্রতি ইনস্টল করেছেন এমন সব অ্যাপ ফোন থেকে ডিলিট করুন। এই অ্যাপ থেকে আপনার ফোনে হ্যাকারদের প্রবেশের সম্ভাবনা থাকতে পারে।
* এছাড়াও, ফোনের অ্যাপ ড্রয়ারে যদি এমন কোনও অ্যাপ দেখেন, যা আপনি কখনই ইনস্টল করেননি, তাহলে বুঝতে হবে সেই অ্যাপ হ্যাকার ইন্সটল করেছে। এই অ্যাপ অবিলম্বে ফোন থেকে ডিলিট করুন।

এবার স্মার্টফোনে ইনস্টল করুন, একটি অ্যান্টি ম্যালওয়্যার অ্যাপ। ফোন থেকে হ্যাকারদের হটাতে এই উপায় খুবই কার্যকরী হতে পারে। আপনার সব প্রিয়জন ও বন্ধুদের জানিয়ে দিন যে, আপনার ফোন হ্যাক হয়েছে। অনেক সময় আপনার ফোনের কনট্যাক্টদের ম্যালওয়্যার-সহ মেসেজ পাঠায় হ্যাকাররা। সে ক্ষেত্রে আপনার পরিচিতরা সতর্ক হয়ে যাবেন।

এই সবের পরেও যদি আপনার মনে হয় যে হ্যাকার ফোন থেকে বিদায় নেয়নি, তাহলে ক্ষেত্রে হ্যাকারকে ফোন থেকে তাড়ানোর শেষ উপায় ফোন ফ্যাক্টরি রিসেট করা। তবে, সে ক্ষেত্রে আপনার ফোনের সব ডেটা ডিলিট হয়ে যাবে। তাই, ফ্যাক্টরি রিসেট করার আগে ফোনের সব গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ক্লাউড ব্যাক আপ নিন। ক্লাউড ব্যাক আপে ভাইরাস ফিরে আসার সম্ভাবনা কম থাকে।

 

ভবিষ্যতে হ্যাকিংয়ের হাত থেকে বাঁচতে কী কী করবেন?

এই যাত্রায় আপনার ফোন থেকে হ্যাকারতে তাড়ানো গেলেও, ভবিষ্যতে যেন তা আবার ফিরে না আসে, তার জন্য সতর্ক হতে হবে। দেখে নিন কী কী করবেন?

পাসকোড ও ফোন লক ব্যবহার করুন – অনেকেই স্মার্টফোনে কোন সিকিউরিটি রাখেন না। এই কারণেই স্মার্টফোনে অনেক সময় ম্যালিশিয়াস অ্যাপ প্রবেশ করে। শুধুমাত্র ফোনের লক স্ক্রিনে পাসওয়ার্ড দিয়ে আপনি বিভিন্ন ম্যালিশিয়াস অ্যাপ প্রবেশ বন্ধ করতে পারবেন।

ফোন নিজের কাছে রাখুন – অনেকেই এই ভুল করেন। আর এই কারণেই ফোনে প্রবেশ করে বিপজ্জনক অ্যাপ। তৃতীয় ব্যক্তির হাতে ফোন গেলে সেই ফোন হ্যাক করা সব থেকে সহজ হয়। তাই, অফিস অথবা পারিবারিক অনুষ্ঠানে ফোন রেখে চলে যাবেন না।

আরও পড়ুন: স্মার্টফোন হ্যাক হয়েছে? বুঝবেন কী ভাবে? 5 লক্ষণ সম্পর্কে জেনে নিন

সাবধানে অ্যাপ ইনস্টল করুন – শুধুমাত্র Google Play Store থেকেই অ্যাপ ইনস্টল করুন। ডেভেলপারের উপর আস্থা না থাকলে অ্যাপ সাইড লোড না করাই ভালো। অ্যাপ Play Store থেকে যে কোনও অ্যাপ ইনস্টল করার আগে রিভিউ ভালো করে পড়ে নিন। যে কোনও রকম সন্দেহজনক রিভিউ দেখলে, সেই অ্যাপ ইনস্টল না করাই ভালো।

ইন্টারনেট হিস্ট্রি ক্লিয়ার করুন – নিয়মিত ফোনের ইন্টারনেট হিস্ট্রি ক্লিয়ার করুন। ব্রাউজারে গিয়ে কুকিজ় ও ক্যাশে ক্লিয়ার করুন। প্রত্যেক মাসে অন্তত একবার ফোনে ব্রাউজার হিস্ট্রি ক্লিয়ার করুন।

আরও পড়ুন: যে কোনও মোবাইল নম্বরের লোকেশন ট্র্যাক করুন এই সহজ উপায়ে

ট্র্যাকিং অ্যাপ – ফোন হারিয়ে গেলে ট্র্যাকিং অ্যাপ ব্যবহার করে সহজেই সেই ফোনের লোকেশন জানা সম্ভব। তার জন্য Android ফোনে Google এর Find My Device অ্যাপ ইনস্টল করে নিজের Google অ্যাকাউন্ট থেকে লগ ইন করুন।

নিয়মিত ফোনের অপারেটিং সিস্টেম আপডেট করুন – ফোনে অপারেটিং সিস্টেম আপডেটেড থাকলে, তা নিয়মিত আপডেট করুন। এই আপডেটের সঙ্গে এমন অনেক সিকিউরিটি ফিচার থাকে যা ফোনকে সুরক্ষিত রাখতে সাহায্য করে। সফটওয়্যার আপডেট না করার জন্য সুরক্ষার খামতির সুযোগ নিয়ে হ্যাকার আপনার ফোনে প্রবেশ করতে পারে।

মনে রাখা জরুরি –

যে মুহূর্তে বুঝতে পারবেন আপনার ফোন হ্যাক হয়েছে, সঙ্গে সঙ্গে ফোন থেকে হ্যাকারকে তাড়ানোর জন্য ব্যবস্থা নিন। বিভিন্ন ফোনে এই উপায় আলাদা হয়। কী ভাবে নিজের ফোন থেকে হ্যাকারকে তাড়াবেন, বুঝতে না পারলে বিশ্বস্ত এমন কারও সাহায্য নিন, যিনি এই বিষয়ে আপনাকে সাহায্য করতে পারবেন। এছাড়াও, নিজের সব অ্যাকাউন্টে টু ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন ব্যবহার করুন। আপনি ফোন মেরামতের জন্য, সেটি কোনও দোকানে দিলে গুরুত্বপূর্ণ অ্যাপ ফোনে লক করুন অথবা হাইড করে দিন। প্রত্যেক মাসে হ্যাকাররা আপনার ফোনে প্রবেশ করার জন্য নতুন নতুন উপায় খুঁজে বার করে। তাই, আপনাকে হ্যাকারদের হাত থেকে বাঁচতে নিয়মিত সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে।

Adobe Photoshop 2021 v22.4.2.242 Free Download

 

 

1 Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *