যে কোনও মোবাইল নম্বরের লোকেশন ট্র্যাক করুন এই সহজ উপায়ে

যে কোনও মোবাইল নম্বরের লোকেশন ট্র্যাক করুন এই সহজ উপায়ে

Track Location Of A Mobile Number:যে কোনও মোবাইল নম্বরের লোকেশন ট্র্যাক করুন এই সহজ উপায়ে, খুব সহজেই আপনি চাইলে যে কোনও ফোন নম্বরের লোকেশন ট্র্যাক করতে পারেন।তার জন্য আপনাকে ডাউনলোড করতে হবে Spyic নামক একটি অ্যাপ। এই অ্যাপের সাহায্যে কী ভাবে কোনও মোবাইল নম্বরের লোকেশন ট্র্যাক করবেন, জেনে নিন।

যে কোনও মোবাইল নম্বরের লোকেশন ট্র্যাক করুন এই সহজ উপায়ে
আজকাল প্রায় সকলেই 24 ঘণ্টা স্মার্টফোন রাখেন নিজের সঙ্গেই। স্মার্টফোনে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের অত্যাধুনিক সেন্সর। 4G-রমাধ্যমে হাই স্পিড ইন্টারনেটের সঙ্গে সব সময় সংযুক্ত থাকে স্মার্টফোন। তবে, এই সেন্সরগুলিকে নজরদারির জন্য ব্যবহার না করে, যদি সুরক্ষার জন্য ব্যবহার করা যায়, তাহলে কেমন হয়? এমনই কাজ করার চেষ্টা করছে Spyic-এর মতো সার্ভিসগুলি।জেলব্রেকিং অথবা রুট ছাড়াই এই ফিচার ব্যবহার করতে দিচ্ছে Spyic। এর ফলে আপনার ফোনের ওয়ারান্টি একদিকে যেমন অটুট থাকছে, আর এক দিকে ফোনের সুরক্ষা নিয়ে চিন্তা করতে হবে না আপনাকে। একবার রেজিস্ট্রেশনের পরে আপনার স্মার্টফোন এক মিটার অ্যাকিউরেসিতে খুঁজে পাওয়া সম্ভব হবে। এছাড়াও দেখে নেওয়া যাবে কল লিস্ট।

কে কাকে ট্র্যাক করবে? কী ভাবে?

স্মার্টফোনের মাধ্যমে কাউকে ট্র্যাক করার মতো বিষয় সামনে এলে কিছু আইনি বাধা আসার সম্ভাবনা প্রবল। যে কোনও স্মার্টফোনের মধ্যে থাকা সিম কার্ডের মাধ্যমে খুব সহজেই সব সময় ট্র্যাক করা সম্ভব। যদিও, সিম কার্ডের মাধ্যমে নিখুঁতভাবে কারও লোকেশন জানা সম্ভব নয়। তবে GPS ও পাবলিক WAN এর মাধ্যমে অনেক বেশি নিখুঁতভাবে লোকেশন জানা সম্ভব।

Spyic

Spyic এর মাধ্যমে শুধুমাত্র লোকেশন ট্র্যাকিং নয়, ফোনের কল লিস্ট, কনট্যাক্ট, মেসেজ, ব্রাউজিং হিস্ট্রি ও বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ দেখে নেওয়া যাবে। তবে, অন্যের ফোনে এই অ্যাপ ব্যবহার করে নিজের ফোনে করতে কোনও সমস্যা নেই। যদিও Android গ্রাহকরা Root অ্যাকসেস-সহ এই সার্ভিস ব্যবহার করলে, অনেক বেশি ফিচার ব্যবহারের সুযোগ পাবেন। যদিও, Root অ্যাকসেস এনাবল করলে আপনার ফোনের ওয়ারান্টি অবৈধ হয়ে যাবে।

 

আরও পড়ুন:স্মার্টফোনে ঘাঁটি গেড়ে বসেছে হ্যাকার? এই সহজ উপায়ে এখনই তাড়ান…

কী ভাবে কাজ করে Spyic?

Android ফোনে Spyic ইনস্টল করার জন্য চাই একটি APK ফাইল। আর ফোনে APK ফাইল ইনস্টল করার জন্য Unknown Sources এনাবল করতে হবে। তবে, iOS গ্রাহকরা iCloud অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে লগ ইন করবেন। যদিও, এর সাহায্যে প্ল্যাটফর্মেই কোনও রকম নিশানা না রেখেই, এই অ্যাপ আন ইনস্টল করা যাবে।

আরও পড়ুন:

Spyic ব্যবহারের খরচ

বিনামূল্যে এই অ্যাপ ইনস্টল করলেও সার্ভিস ব্যবহারের জন্য সাবস্ক্রিপশনে খরচ করতে হবে। Spyic এর কোনও বিনামূল্যের সাবস্ক্রিপশন অথবা ফ্রি ট্রায়াল নেই। যদিও, লম্বা ভ্যালিডিটির সাবক্রিপশনে খরচ কম হবে। এছাড়াও, মোট তিনটি ধাপের সাবক্রিপশন কেনা যাবে। বেসিক প্ল্যানে মাসে 40 মার্কিন ডলার খরচ হবে।

Spyic একটি শক্তিশালী টুল যা Android ও iOS ডিভাইস ট্র্যাকিংয়ে কাজে লাগে। রুট অথবা জেলব্রেক ছাড়াই এমন অনেক ফিচার আপনার স্মার্টফোনে এই সার্ভিস নিয়ে আসবে যা অন্যথায় সম্ভব না।

1 Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *