ইনস্টাগ্রাম: ১৬’র কম বয়সীদের অ্যাকাউন্ট ‘বাই ডিফল্ট প্রাইভেট’

ইনস্টাগ্রাম: ১৬’র কম বয়সীদের অ্যাকাউন্ট ‘বাই ডিফল্ট প্রাইভেট’

পরীক্ষায় উঠে এসেছে প্রতি পাঁচ জনের মধ্যে একজন প্রাইভেট সেটিংস ডিফল্ট করে দেওয়ার পর প্রোফাইল ফের পাবলিক করে নিচ্ছে। বিবিসি’র প্রতিবেদনে উঠে এসেছে, ইনস্টাগ্রামে ১৬ বছরের কম বয়সী যাদের অ্যাকাউন্ট রয়েছে, তাদেরকে ফটো শেয়ারিং অ্যাপটি প্রোফাইল ‘প্রাইভেট’ করে নেওয়ার “সুবিধা ব্যাখ্যা করে” নোটিফিকেশন পাঠাবে।

ইনস্টাগ্রাম: ১৬’র কম বয়সীদের অ্যাকাউন্ট ‘বাই ডিফল্ট প্রাইভেট’

এ ছাড়াও ১৩ বছরের কম বয়সীদের জন্য নতুন অ্যাপ আনতেও কাজ অব্যাহত রেখেছে ইনস্টাগ্রাম। গোটা বিষয়টি নিয়ে এরই মধ্যে সমালোচকদের তোপের মুখে পড়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এরই মধ্যে মে মাসে ফেইসবুককে ১৩ বছরের কম বয়সীদের জন্য তৈরি ইনস্টাগ্রামের কোনো সংস্করণ আনার পরিকল্পনা বাদ দিতে বলছেন ডেমোক্রেট দলীয় মার্কিন আইনপ্রণেতাদের কয়েকজন। তাদের ভাষ্যে, ফেইসবুক “শিশুদেরকে অনলাইনে সুরক্ষিত রাখার অর্থবহ প্রতিশ্রুতি দিতে” ব্যর্থ হয়েছে। অন্যদিকে, ৪০টি অঙ্গরাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেলদের একটি দলও ফেইসবুক প্রধান মার্ক জাকারবার্গকে এ ধরনের পরিকল্পনা বাদ দিতে বলেছেন।

কিন্তু ফেইসবুক বলছে, “বাস্তবতা হলো তারা এরই মধ্যে অনলাইনে চলে এসেছে, ভুল বয়স দেওয়া থেকেও মানুষকে থামানোর কোনো নিশ্ছিদ্র উপায় নেই, আমরা সুনির্দিষ্টভাবে তাদের জন্য আমাদের অভিজ্ঞতা সাজাতে চাই, এর ব্যবস্থাপনায় থাকবেন মা-বাবা ও অভিভাবকরা।”

ব্যবহারকারীদের সঠিক বয়স শনাক্তে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়েও কাজ করছে ফেইসবুক। এভাবে এখনও অ্যাপ ব্যবহারের বয়স হয়নি এমন ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্ট সরিয়ে দেবে তারা। যুক্তরাজ্যে আসন্ন ‘অনলাইন সেফটি বিল’ –এ প্রযুক্তি জায়ান্টদেরকে শিশুদেরকে ক্ষতিকর কনটেন্ট প্রবেশ থেকে আটকাতে যথেষ্ট সুরক্ষা ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

প্ল্যাটফর্ম থেকে ক্ষতিকর কনটেন্ট সরাতে না পেরে এরই মধ্যে শিশু দাতব্য সংস্থার তোপের মুখে পড়েছে ইনস্টাগ্রাম। ইউরোপে শিশুদের ডেটা ব্যবহার প্রশ্নে তদন্তও চলছে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে। এর প্রতিক্রিয়ায় কিছু শিশু সুরক্ষা পদক্ষেপ নিয়েছে প্ল্যাটফর্মটি।

মার্চে ইনস্টাগ্রাম জানিয়েছিল, কিশোর বয়সীদের অনুসরণ তালিকায় থাকা প্রাপ্তবয়স্করাই শুধু তাদের বার্তা পাঠাতে পারবেন। এ ছাড়া অন্য কেউ পারবে না।

নিজেদের সাম্প্রতিক আপডেটকে “ভারসাম্য রক্ষাকারী” হিসেবে অভিহিত করে ইনস্টাগ্রাম বলছে, “আমরা আগে থেকেই অল্প বয়সীদেরকে যখন তারা ইনস্টাগ্রামে সাইন আপ করে তখন পাবলিক বা প্রাইভেট অ্যাকাউন্টের মধ্যে বেছে নিতে বলে এসেছি, কিন্তু আমাদের সাম্প্রতিক গবেষণায় উঠে এসেছে তারা আরও গোপনতা পছন্দ করে।”

এ ছাড়াও ‘সম্ভাব্য সন্দেহজনক ব্যবহার’ দেখা গেছে এমন ব্যক্তিদেরকে শিশুদের অ্যাকাউন্ট না দেখানোর ব্যবস্থা করেছে ইনস্টাগ্রাম। যেমন, কেউ কোনো মেসেজ পাঠানো থেকে বা শিশুদের অ্যাকাউন্ট অনুসরণ করা থেকে ব্লকড হলে, তাকে সম্ভাব্য সন্দেহজনক আচরণের তালিকায় ধরবে সেবাটি এবং শিশুদের যাতে “সুনির্দিষ্ট কিছু প্রাপ্তবয়স্ককে খুঁজে পেতে কষ্ট হয়” সে ব্যবস্থা করবে তারা।

অন্যদিকে, বাড়তি সতর্কতা হিসেবে বিজ্ঞাপনদাতাদের শুধু শিশুদের অ্যাকাউন্টের বয়স, লিঙ্গ এবং অবস্থান ডেটার ভিত্তিতে বিজ্ঞাপন দিতে দেবে প্ল্যাটফর্মটি। আগের মতো ‘আগ্রহ’ এবং ওয়েব ব্রাউজিং অভ্যাসের ডেটা আর দেওয়া হবে না।

 

ডাউনলোড করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *